মুরগি ধুয়ে রান্না করেন? সাবধান!

মুরগি রান্না করার আগে ভাল করে ধুয়ে নেয়া উচিত। এটাই তো বলে আমাদের কমনসেন্স, তাই না? কারণ, কাঁচা মুরগির মধ্যে থাকা ব্যাকটেরিয়া শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

তবে জানেন কি অন্য কথা বলছেন ফুড স্ট্যান্ডার্ডস এজেন্সির গবেষকরা। তাঁরা জানাচ্ছেন, ধোয়ার ফলে ব্যাকটেরিয়া আরও বেশি ছড়িয়ে পড়তে পারে। যা শরীরের জন্য হতে পারে মারাত্মক ক্ষতিকারক।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফুড পয়জনিং-এর অন্যতম কারণ ক্যাম্পিলোব্যাকটর ও সালমোনেল্লা ব্যাকটেরিয়া। কাঁচা মুরগিতে এই দু’প্রকার ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতিই লক্ষ্য করা যায়। পাখিদের খাদ্যনালীতে সালমোনেল্লা ব্যাকটেরিয়া থাকে। এই ব্যাকটেরিয়া শরীরে গেলে ডায়রিয়া, জ্বর, পেট ব্যথা, বমির মতো সমস্যা হতে পারে। এই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ রোখা সহজ হলেও ক্যাম্পিলোব্যাকটর অনেক বেশি ক্ষতিকারক। শুধু পানি দিয়ে ধুয়ে এই ব্যাকটেরিয়া পরিষ্কার করা সম্ভব হয় না। বরং মুরগির মধ্যে আরও বেশি ছড়িয়ে পড়তে পারে।

কীভাবে এড়াবেন ফুড পয়জনিং?

ফুড স্ট্যান্ডার্ডস এজেন্সির পরামর্শ অনুযায়ী, চিকেন জীবাণুমুক্ত করার একমাত্র ভাল করা রান্না করা। পরিষ্কার সুসিদ্ধ চিকেন খেলে ফুড পয়জনিং-এর ঝুঁকি থাকে না। রান্না করার সময় চিকেনের সবচেয়ে মোটা টুকরো কেটে দেখুন ভিতর থেকে ভাল করে গরম হয়ে সুসিদ্ধ হয়েছে কিনা। কোনোভাবেই যেন লালচে ভাব না থাকে।

মুরগি সব সময় ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার নিচে রাখুন। এর বেশি তাপমাত্রায় মুরগিতে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*