নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মেয়ের ব্যক্তিগত কথা ! আংকেল আমাকে স্ত্রীর মতো ব্যবহার করে…এখন!

0

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানিয়েছেন নিজের সমস্যার কথা

আমার প্রেমিক ছিলো, ৫ বছরের সম্পর্ক। এরপর সে ইউ এস এ চলে গিয়ে আর যোগাযোগ রাখেনি। তখন আমি প্রচণ্ড কষ্টে থাকি। সেই সময়ে আমার পাশে আমার চাকুরীক্ষেত্রে পরিচিত আংকেল আমাকে সান্ত্বনা দেয় এবং বাস্তবতা কী তা বুঝায়। এখন আমি সেই সমস্যা অনেকটা কাটিয়ে উঠেছি। এরপর চাকুরী ক্ষেত্রে পরিচিত আরেকজন ৬০ বছরের মানুষের সাথেও ২০১২ থেকে এই পর্যন্ত একটা সাধারণ কথা বলা ভালো সম্পর্ক হয়। বর্তমানে আমি উনারই দেয়া একটা সরকারী চাকুরী করি। উনি অনেক বড় একটা পোষ্টে আছেন।

সমস্যা হল একই জায়গায় জব করতে গিয়ে উনি আমাকে স্ত্রীর মতো সম্পর্ক করে এবং অনেক দূর চলে গেছে। উনিও নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হয়েও আমার সাথে যোগাযোগ রেখেছে। উনার স্ত্রী আমার কথা জানে এবং মেয়েরাও। কিন্তু উনি এসব এড়িয়ে আমার সাথে লুকিয়ে দেখা করে, কথা বলে। একই অফিসে হওয়াতে জব ক্ষেত্রেও উনার সম্মান নষ্ট হচ্ছে। তারপরও উনি এগুলো মানিয়ে চলছেন।

উনি চাচ্ছেন উনার অবসর গ্রহনের পর আমাকে বিয়ে করবে। কিন্তু আমার বাসায় এখন আমার বিয়ের প্রস্তাব আসছে। আমি একবার ভাবছি অপরিচিত কাউকে বিয়ে করার থেকে উনাকে বিয়ে করলে বাসায় ভালো থাকবো। যেহেতু উনি উনার পরিবার ত্যাগ করে আমাকে বিয়ে করবে। আর উনি ধনীও আছেন, তাই আমরা ভালোই থাকবো। ইয়াং ছেলেরা বউকে ব্যবহার করে, তারা ভালোবাসার মুল্য দেয় না। যেটা বয়স্ক লোক দিবে।

এখন আপু আপনি বলুন আমার কী করা উচিত? প্রস্তাবে রাজী হয়ে বিয়ে করা নাকি উনার জন্য দুই বছর অপেক্ষা করে উনাকেই বিয়ে করা?

পরামর্শ:
খুব স্পষ্টভাবে বলি আপু- আপনি যদি এই বিয়েটা করেন, সেটা হবে আপনার জীবনের সবচাইতে বড় ভুল। সবচাইতে বড়। এমন এক ভুল যেটার মাসুল আপনাকে সারা জীবন দিতে হবে। নিজের জীবনে তো কষ্ট পাবেনই, নিজের বিবেকের সামনেও কখনো মুখ দেখাতে পারবেন না।

আপনাকে কে এই ভুল ধারণা দিয়েছে যে তরুণ ছেলেরা স্ত্রীকে ব্যবহার করে? হাতের ৫ আঙ্গুল কি সমান? আপনি ২/১ জনকে দেখেই সব পুরুষ সম্পর্কে ধারণা বানিয়ে ফেললেন? আর আপনাকে কী বলেছে যে এই ভদ্রলোক আপনাকে দাম দেবে? আপু, কেবল আমাদের দেশেই যে, পৃথিবীর সমস্ত দেশেই দেখা যায় যে প্রায় বৃদ্ধ বয়সের পুরুষেরা একটা সময়ে গিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য পাগল হয়ে যান। এবং বিয়েটি করেন কম বয়স্ক কোন মেয়েকে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই বিয়ের উদ্দেশ্য থাকে যৌন আগ্রহ। আরও বড় কথা, বিনে পয়সায় একজন নার্স পাওয়া যায়। যে বিচানায় পড়ে গেলে তাঁর সেবাযত্ন করবে। স্ত্রী বলে চলেও যেতে পারবে না।

আপনার কেন বিয়েটা কথা উচিত হবে না, আমি সেই কারণগুলো উল্লেখ করে দিচ্ছি। সিদ্ধান্ত আপনার।

প্রথমত, আপনি কি এই ভদ্রলোককে ভালোবাসেন? চিঠির কোথাও আপনি ভালোবাসেন এমন কোন কথা লেখেন নি। তাহলে যাকে ভালোবাসেন না, তাঁকে কেন বিয়ে করবেন? কেবলই টাকার জন্য?

দ্বিতীয়ত, ধরে নিলাম যে আপনি তাঁকে ভালোবাসেন ও বিয়ে করতে চান। কিন্তু কখনো কি ভেবে দেখেছেন যে সেটার জন্য আরেকজন মহিলার সংসার ভাঙতে হবে আপনাকে? আপনি তরুণী, চাইলেই অন্য পুরুষ পাবেন। কিন্তু জীবনের এই পড়ন্ত বেলায় এই ভদ্রমহিলার জীবন নষ্ট করবেন নিজের সংসার সাজানোর জন্য। এটা কি কোন মানুষের কাজ হতে পারে? আপনার বিবেক কী বলে? ধরে নিলাম ভদ্রলোকের স্ত্রী খুবই খারাপ। কিন্তু কন্যারা? কন্যারা যদি অবিবাহিত হয়ে থাকে, সেই মেয়েগুলোর আর কোথাও ভালো বিয়ে হবে না। আর যদি বিবাহিতা হয়ে থাকেন, তাওলে আরও বিপদ। দিনরাত শ্বশুর বাড়ির কাছ থেকে কথা শুনবেন, অপমানে ছোট হয়ে থাকবেন। নিজের সুখের জন্য এতগুলো মানুষের জীবন নষ্ট করবেন আপনি? বিবেকে একটুও বাঁধবে না আপু?

তৃতীয়ত, পরিবার কি কখনো রাজি হবে একজন বয়স্ক লোকের সাথে আপনাকে বিয়ে দিতে? সত্যি বলতে কি, লোকটা আমার বাবার বয়সী। এই বয়সী একজন মানুষকে বিয়ে করবেন, সমাজ কী বলবে? আপনার পরিবার কি সমাজে খাটো হয়ে যাবে না? এটাই চান আপনি?

চতুর্থত, এই ভদ্রলোকের কাছ থেকে কেবল অর্থ পেলেই হবে আপনার, আজ কিছু লাগবে না? তিনি কখনো আপনার মনের রোমান্সের চাহিদা পূরণ করতে পারবেন না, কারণ সেই বয়সটাই তাঁর নেই। এমনও হতে পারে যে শারীরিক ভাবেও আপনাকে সুখী করতে পারবেন না তিনি। কিংবা আপাতত পারলেও সেটা কিছু বছরের জন্য। তারপর আপনার যৌবন কীভাবে পার হবে আপু? আপনার কি সন্তানেরও আকাঙ্ক্ষা নেই?

শেষ কথা এই যে, সেই ভদ্রলোক আর কত বছর বাঁচবেন বলুন? এটা একদম নিশ্চিত যে আপনাকে তরুণী রেখেই মারা যাবেন তিনি, বিধবা হওয়া আপনার অবধারিত নিয়তি। কিংবা বিছানায় পড়ে থেকে নিজে কষ্ট পাবেন আর আপনাকেও কষ্ট দেবেন। কি গ্যারান্টি আছে যে তাঁর মৃত্যুর পর আপনি তাঁর সহায় সম্পদ পাবেন

টাকার লোভ বা ভ্রান্ত ধারণায় না ভুলে ঠাণ্ডা মাথায় বাস্তবতা চিন্তা করুন। আর আমার মনে হয় নিজের পছন্দ না থাকলে পরিবারের পছন্দে দেখেশুনে নিজের সাথে মানানসই কাউকে বিয়ে করাই ভালো হবে। এই বয়স্ক ভদ্রলোককে নয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.